ব্রেকিংঃ দেশের ক্রিকেট অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা

প্রাণঘা’তী করোনার প্রাদুর্ভাবে দেশের সব পর্যায়ের ক্রিকেট অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি)

সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ তথ্য জানিয়েছেন।আজ বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-

বাংলা স্টেডিয়ামে এই ঘোষণা দেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আগামী ১৫

এপ্রিলের আগে ক্রিকেট ফেরার কোনো সম্ভাবনাও দেখছেন না তিনি।এ নিয়ে বিসিবি

সভাপতি বলেন, ‘এর আগে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এক রাউন্ডের

খেলা স্থগিত করেছিলাম। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় সব ধরনের ক্রিকেট অনির্দিষ্টকালের

জন্য স্থগিত করা হলো।

আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ঢাকা লিগের খেলা মাঠে ফেরার কোনো সম্ভাবনা দেখছি

না।’উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের কারণে গত সোমবার সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে

অন্তত ৩১ মার্চ পর্যন্ত বাংলাদেশের ঘরোয়া সব খেলাধুলা স্থগিত করার ঘোষণা

দিয়েছিলেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। তবে বিসিবি তখন শুধু ১৮ ও ১৯

মার্চের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের খেলা স্থগিত করে। এবার সব ধরনের ক্রিকেটই বন্ধ হয়ে

গেল।আরও পড়ুন….

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস নিয়ে আ’তঙ্কের মধ্যে ভারতের বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ড.

দেবী শেঠি এক অডিও বার্তায় কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন। তার অডিও ক্লিপ ইতিমধ্যে

ভাইরাল হয়েছে।দেবি শেঠী জানিয়েছেন, যদি কারো ফ্লু বা সর্দি থাকে, প্রথমে নিজেকে

আইসোলেট করে লক্ষণ ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রথম দিন শুধু ক্লান্তি

আসবে। তৃতীয় দিন হালকা জ্বর অনুভব হবে। সঙ্গে কাশি ও গলায় সমস্যা হবে। পঞ্চম

দিন পর্যন্ত মাথা যন্ত্রণা।

পেটের সমস্যাও হতে পারে। ষষ্ঠ বা সপ্তম দিনে শরীরে ব্যথা বাড়বে এবং মাথা যন্ত্রণা

কমতে থাকবে। তবে ডায়েরিয়ার লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পেটের সমস্যা থেকে যাবে।

এবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অষ্টম ও নবম দিনে সব লক্ষণই চলে যাবে। তবে সর্দির প্রভাব

বাড়তে থাকে। এর অর্থ আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়েছে এবং আপনার করোনার

আ’শঙ্কা নেই।তিনি বলেন, ‘এমন সময়ে আপনার করোনাভাইরাসের পরীক্ষার প্রয়োজন

নেই। কারণ আপনার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে। যদি অষ্টম বা নবম দিনে

আপনার শরীর আরও খারাপ হয়, করোনা হেল্পলাইনে ফোন করে অবশ্যই পরীক্ষা করে

নিন।

Updated: 19/03/2020 — 7:36 PM