নিজে’ বাঁচু’ন, অন্যকে বাঁ’চা’র সু’যোগ করে দিন: শাবিক খান

বিশ্বের শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া ক’রোনাভা’ইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মৃ’ত্যু’র সংখ্যা এখন ৮ হাজার ২৭২।

বিশ্বে এখন সব’চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে এ ভাইরাস প্রতিরোধ করা।

বুধবার সন্ধ্যা’য় নি’জের ফেসবুক পেজে ক’রোনাভা’ইরাস নিয়ে সচেত’নতা’লক পোস্ট দিয়েছেন জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান।

ওই পোস্টে তিনি লিখেছেন, নিয়’মিত হাত ধুয়ে পরি’ষ্কার-প’রিচ্ছন্ন থেকে এবং সম্ভাব্যআ,ক্রান্ত ব্য’ক্তির সঙ্গে মে’লামে’শা না করে

এ ভাই’রাস সংক্র’মণের ঝুঁ’কি কমা’নো সম্ভব। যে কোনো ধরনের অনু’ষ্ঠান, জনসভা, জনস’মাগম আছে এমন জা’য়গা এড়িয়ে চলতে হবে।

ক’রোনা’ভাইরা’সের সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যক্তিগত সচে’তনতার কো’নো বিকল্প নেই।

করো’নাভাই’রাসের সংক্র’মণের পর লক্ষণ প্রকা’শে সর্বোচ্চ ১৪ দিন পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

লক্ষণ: শুকনো কাশি’র স’ঙ্গে জ্ব’র। শ্বা’সপ্র’শ্বা’সে সমস্যা। মা’থাব্যথা, গলাব্যথা। মাংসপেশি’তে ব্যথা থাকতে পারে।

এ ক্ষেত্রে সংক্র’মণ শুরু হয় জ্ব’র দিয়ে। এরপর শুকনো কাশি হতে পারে, যার এক স’প্তাহের মধ্যে শ্বা’স’প্রশ্বা’সে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

করো’নাভা’রাস আ’ক্রান্ত, সন্দেহ’জনক ব্যক্তির সংস্প’র্শে না আসাই সবচে’য়ে ভালো প্রতিরোধ। নিজেকে নিরা’পদ রাখতে সর্দি-কা’শি’তে আ’ক্রান্ত যেকো’নো ব্যক্তি থেকে নি’রাপদ দূ’রত্বে থাকতে হবে।

সচেতনতা: আ’ক্রান্ত ব্যক্তি ও পরি’চর্যা’কারীর মুখে বিশেষ মা’স্ক পরতে হবে। ক’খনোই নাক-মুখ না ঢেকে হাঁ’চি-কা’শি দেবেন না।

টিস্যু বা রু’মালের ব্য’বহার শেষ হলে পু’ড়ি’য়ে ফে’লতে হবে। বন্যপ্রা’ণী বা গৃহ’পালিত পশু’কে খালি হাতে স্প’র্শ করা যাবে না। মাছ-মাংস ভালো করে সে’দ্ধ করে নিতে হবে।

বারবার সাবান পানি বা হ্যান্ড স্যা’নিটাই’জার দিয়ে হাত প’ষ্কার কর’তে হবে। যে’সব ব’স্তুতে অনেক মা’নুষে’র স্প’র্শ লাগে যেমন সিঁ’ড়ির রেলিং, লিফট, দরজা, পানির কল, কম্পিউটারের মাউস বা ফোন, গাড়ি বা রি’কশা’র হা’তল ইত্যাদি ধর’লে সঙ্গে সঙ্গে হাত পরি’ষ্কার কর’তে হবে।

সবাই সচে’তনতা অ’বলম্ব’ন করুন। নিজে’ বাঁচু’ন, অন্যকে বাঁ’চা’র সু’যোগ করে দিন। সৃ’ষ্টি’ক’র্তা সবাইকে ভালো রাখু’ন।

তবে ওই পো’স্টে তিনি কোনো ত’থ্যসূত্র উল্লেখ ক’রেননি।

Updated: 19/03/2020 — 9:59 AM